সালাহর হ্যাটট্রিকে শেষ মুহূর্তে জয় লিভারপুলের

0
15

মৌসুমের প্রথম ম্যাচ, ঘরের মাঠ এনফিল্ডে। শুরুতেই পেনাল্টি থেকে চ্যাম্পিয়নের এগিয়ে দেন মোঃ সালাহ। এই নিয়ে টানা ৪ মৌসুম ইপিএলে লিভারপুলের হয়ে প্রথম ম্যাচেই গোল পেলেন এই স্ট্রাইকার। কিন্তু ৮ মিনিট যেতে না যেতেই হ্যারিসনের দুর্দান্ত এক গোল। ম্যাচের তখন ১২ মিনিট, অথচ দুইদলের স্কোরকার্ড ১-১।

আক্রমণ, পাল্টা আক্রমণের ম্যাচে আবারও ৮ মিনিটের ব্যবধান। এবার স্বাগতিকরা এগিয়ে গেলো, রবার্টসনের কর্নার থেকে লাফিয়ে উঠে হেডে নিশ্চিত গোল করেন ভ্যান ডাইক।

১৬ বছর পর প্রিমিয়ার লিগে ফিরে আসা লিডসের জাদু যেনো তখনও বাকি। ৩০ মিনিটে ম্যাচে দ্বিতীয়বারের মতো সমতায় ফিরলো অতিথিরা। এবার গোল করলো বামফোর্ড। তবে ৩ মিনিট পর আবারও এগিয়ে ক্লপের শিষ্যরা। দুরন্ত এক গোল, প্রথম হাফেই জোড়া লক্ষ্যভেদ মিশরের রাজা মোঃ সালাহর। ৩-২ এর লিড নিয়েই টানেলে ফিরলো লিভারপুল।

দ্বিতীয় হাফের শুরু থেকে আবারও ম্যাচে উত্তেজনা বাড়তে থাকে। “বিনা যুদ্ধে নাহি দিবো সুচাগ্র মেদিনী” এমনই মনোভাব বিয়েলসার শিষ্যদের। ৬৬ মিনিটে ক্লিচের গোলে যেনো সেই দামাদোলই বেজে উঠলো। ৩-৩ এর লড়াইটা চললো শেষপর্যন্ত। তবে বিধাতা, লিডসের ভাগ্যলিপি টা হয়তো অন্যরকমই লিখেছেন। ৮৮ মিনিটে আবারও পেনাল্টি থেকে মোঃ সালাহর গোল। নিশ্চিত ড্র ম্যাচে হার। ৩-৩ থেকে ৪-৩ এর লজ্জা? নাকি হার না মানার মনোভাব।

মৌসুমের পয়লা ম্যাচেই সালাহর হ্যাট্ট্রিক নাকি ১৬ বছর পর ফিরেই লিডসের ঝলক? প্রশ্নটা তোলা রইলো।