সংবাদ সম্মেলনে ফিফা প্রেসিডেন্ট যা বললেন

বাংলাদেশে ফুটবলের তুলনায় ক্রিকেট তুমুল জনপ্রিয়। তার পেছনে যথেষ্ট কারণও রয়েছে। কারণ ফুটবলের চেয়ে এই দেশের ক্রিকেটেই সফলতা বেশি। অবশ্য ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো বিষয়টি কিছুতেই মানতে রাজি নন। তাঁর কাছে ক্রিকেট কখনোই আনন্দদায়ক নয় বরং ‘ক্রিকেট টু মাচ বোরিং।’

১৫ ঘণ্টার সফরে আজ বৃহস্পতিবার ঢাকায় আসেন ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো। সকালে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনে(বাফুফে) যান তিনি। এরপর বিকেল ৩টা নাগাদ যোগ দেন সংবাদ সম্মেলনে। রাজধানীর সোনারগাঁ হোটেলে ওই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে আগে থেকে নির্ধারিত পাঁচটি প্রশ্নের উত্তর দেন ফিফা সভাপতি। যার মধ্যে একটি ছিল বাংলাদেশের ফুটবলের জনপ্রিয়তা নিয়ে। প্রশ্নটা এমন ছিল যে, বাংলাদেশে ফুটবলের তুলনায় ক্রিকেট জনপ্রিয়। এ ক্ষেত্রে ফুটবলের জনপ্রিয়তা ফেরাতে বাফুফের কী উদ্যোগ নেওয়া উচিত বলে মনে করেন ফিফা সভাপতি?

প্রশ্ন শুনে ফিফা সভাপতি হাসির ছলে বলেন, ‘ক্রিকেট টু মাচ বোরিং বরং ফুটবল আনন্দদায়ক খেলা।’

বাংলাদেশে ফুটবলের চেয়ে ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা বেশি এটা কিছুতেই মানছেন না ফিফা সভাপতি। তাঁর কথায়, ‘আমি মানি না, ক্রিকেট বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলা। ক্রিকেট তো অনেক কঠিন খেলা। আপনি কীভাবে বলতে পারবেন যে ক্রিকেট সবাই বোঝে? ফুটবল খুবই সহজে বোঝা যায়, খেলা যায়। আপনার কাছে বল আছে, খেলছেন, গোল করছেন, উল্লাস করছেন। ফুটবল হৃদয় দিয়ে খেলা যায়।’

এ ক্ষেত্রে কম সংখ্যক দেশ ক্রিকেট খেলে বলেই বাংলাদেশে এর জনপ্রিয়তা বেশি বলে মনে করেন ইনফান্তিনো, ‘হ্যাঁ আমি বুঝতে পারছি যে ক্রিকেটে বাংলাদেশের অনেক সাফল্য রয়েছে। সারা বিশ্বে হাতেগোনা কিছু দেশ ক্রিকেট খেলে। সংখ্যাটা কত হবে? ১০ বা ১১? অন্যদিকে ফুটবল খেলে ২১১টা দেশ। তো আপনি যখন অল্প কয়েকজনের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করবেন তখন আপনার সাফল্যের সম্ভাবনা এমনিতেই বেড়ে যাবে, সহজেই শীর্ষে যেতে পারবেন।’ তিনি আরো বলেন, ‘বাংলাদেশের ফুটবল নিয়ে খুব বেশি জানি না, এটা ঠিক। ভারতের বিপক্ষে ড্রয়ের খবর জানি। জামাল সম্পর্কে শুনেছি। আপনাদের সামনে (বাফুফের সভাপতি ও সাবেক তারকা ফুটবলার কাজী সালাহউদ্দিন) আপনাদের লিভিং লিজেন্ড আছে। তরুণদের নিয়ে কাজ করার মিশন আছে। এখানে মিডিয়ারও দায়িত্ব আছে। তরুণদের সেই আশাটা দিতে হবে।’

আজ বুধবার দিবাগত রাত ১টা নাগাদ ঢাকায় পা রাখার কথা ছিল ফিফা প্রেসিডেন্ট জিয়ান্নি ইনফান্তিনোর। কিন্তু মঙ্গোলিয়ার বৈরী আবহাওয়ার কারণে বাংলাদেশে পৌঁছাতে প্রায় বৃহস্পতিবার সকাল হলো। তবে দীর্ঘ ভ্রমণযাত্রার পরও ঢাকায় পা রেখে উচ্ছ্বসিত বিশ্ব ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থার প্রধান।

ঢাকা বিমানবন্দরে ফিফা সভাপতিকে স্বাগত জানান বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন, সহসভাপতি কাজী নাবিল আহমেদ, ফিফা কাউন্সিল সদস্য মাহফুজা আক্তার কিরণসহ অন্য সদস্যরা।

ইনফান্তিনোর নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের ফিফা প্রতিনিধিদলের মঙ্গোলিয়া থেকে ঢাকায় এসেছেন। প্রতিনিধিদলের বাকি সদস্যরা হলেন ফিফার ডেপুটি জেনারেল সেক্রেটারি মাথিয়াস গ্রাফস্ট্রোম, চিফ অব কমিউনিকেশনস অনোফরে কস্তা, এশিয়া ও ওশেনিয়া অঞ্চলের ডিরেক্টর অব মেম্বার অ্যাসোসিয়েশন সঞ্জীবন বালা সিংহাম ও সভাপতির অফিস ম্যানেজার ফেড্রিকো রাভিগ্লিওন।