যেভাবে হবে উয়েফা নেশন্স লীগ-

0
381

চার বিশ্বকাপ ধরে চ্যাম্পিয়ন ইউরোপীয় দেশগুলো; লাতিন’দের একটু পিছিয়ে যাওয়ার কারণ হিসাবে অনেকে অনেক কারণ দেখিয়ে থাকেন।

 

এই বছর থেকে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে উয়েফা নেশনস লীগ, এটি ইউরোপীয় দেশগুলোকে আরো এগিয়ে নিবে বলে আমি মনে করি। যেখানে ব্রাজিল আর্জেন্টিনা খর্ব শক্তির দলের বিপক্ষে খেলবে প্রীতি ম্যাচ, সেখানে নিজেদের মাঝে ইউরোপীয়রা খেলবে প্রতিযোগিতামুলক ম্যাচ।

 

তো কিভাবে হচ্ছে নেশনস লীগ!?

 

★ উয়েফা নেশনস লিগ হবে ৪ টি লীগে, উয়েফার ৫৫টি দেশকে তাদের র‍্যাংকিং (বিভিন্ন টুনার্মেন্টে জয় পরাজয়ের হিসাব অনুযায়ী করা রেংকিং, নট ফিফা রেংকিং) অনুযায়ী মোট ৪টি লিগে ভাগ করা হয়েছে।

 

★ প্রথম লিগে অর্থাৎ লিগ ‘এ’ তে খেলবে র‍্যাংকিং এর সেরা ১২টি দল, যাদেরকে আবার চারটি গ্রুপে ভাগ করা হয়েছে।

 

★ এরপর রয়েছে দ্বিতীয় লিগ বা লিগ ‘বি’, যাতে থাকবে র‍্যাংকিং এর পরবর্তী ১২টি দল। এই লীগকেও ভাগ করা হয়েছে ৪টি গ্রুপে।

 

★ পরবর্তী ১৫টি দল নিয়ে আছে তৃতীয় লিগ বা লিগ ‘সি’, এই লিগও ভাগ হবে চারটি গ্রুপে, যাদের মধ্যে ৩টি গ্রুপে থাকবে ৪টি করে দল এবং একটি গ্রুপে থাকবে ৩টি দল।

 

★ র‍্যাংকিংয়ে সবচেয়ে নিচের ১৬টি দল নিয়ে গঠিত হবে চতুর্থ লিগ বা লিগ ‘ডি’। এই ১৬টি দলকে ভাগ করা হয়েছে ৪টি গ্রুপে।

 

★ এই লিগের প্রত্যেক গ্রুপের খেলা হবে হোম এবং অ্যাওয়ে পদ্ধতিতে, অর্থ্যাৎ গ্রুপে প্রত্যেক ২ বার করে মুখোমুখি হবে।

 

★ খেলার ফলাফল অনুযায়ী কেবল লীগ A এর চার গ্রুপের সেরা ৪ দল নিয়ে ৪ সেমিফাইনাল। ফাইনালের জয়ী দলই হবে প্রথম উয়েফা নেশনস লিগ চ্যাম্পিয়ন।

 

★ তাহলে B,C,D লীগ জয়ীদের কাজ কি?? এখানে থাকছে প্রমোশন-রেলিগেশন পদ্ধতি, প্রতি লীগের প্রতি গ্রুপের সেরা দলগুলো উয়েফা নেশনস লিগের পরবর্তী আসরে উন্নীত হবে, আর খারাপ পারফর্মেন্স করা দলগুলো নিচের লিগে অবনমিত/রেলিগেটেড হবে।

 

★ এছাড়াও,,

 

# ২০২০ সালে অনুষ্ঠিতব্য ইউরোপিয়ান ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে এই প্রতিযোগিতার অন্যান্য লীগের জয়ীরা সুবিধা পাবে, এইখানে আরো কিছু জটিল অংক রয়েছে যা অন্য কোন পোস্টে আলোচনা করা হবে।

 

এক নজরে দেখে নেওয়া যাক উয়েফা নেশনস লিগের গ্রুপগুলো-

 

★ লিগ এ

গ্রুপ ১ – জার্মানি, ফ্রান্স, নেদারল্যান্ডস

গ্রুপ ২ – বেলজিয়াম, সুইজারল্যান্ড, আইসল্যান্ড

গ্রুপ ৩ – পর্তুগাল, ইতালি, পোল্যান্ড

গ্রুপ ৪ – স্পেন, ইংল্যান্ড, ক্রোয়েশিয়া

 

★ লিগ বি

গ্রুপ ১ – স্লোভাকিয়া, ইউক্রেন, চেক রিপাবলিক

গ্রুপ ২ – রাশিয়া, সুইডেন, তুরস্ক

গ্রুপ ৩ – অস্ট্রিয়া, বসনিয়া-হার্জেগোভিনা, নর্দার্ন আয়ারল্যান্ড

গ্রুপ ৪ – ওয়েলস, রিপাবলিক অফ আয়ারল্যান্ড, ডেনমার্ক

 

★ লিগ সি

গ্রুপ ১ – স্কটল্যান্ড, আলবেনিয়া, ইসরাইল

গ্রুপ ২ – হাঙ্গেরি, গ্রিস, ফিনল্যান্ড, এস্তোনিয়া

গ্রুপ ৩ – স্লোভেনিয়া, বুলগেরিয়া, নরওয়ে, সাইপ্রাস

গ্রুপ ৪ – রোমানিয়া, সার্বিয়া, মন্টেনেগ্রো, লিথুয়ানিয়া

 

★ লিগ ডি

গ্রুপ ১ – জর্জিয়া, কাজাখস্থান, লাটভিয়া, অ্যান্ডোরা

গ্রুপ ২ – বেলারুশ, লুক্সেমবার্গ, মলদোভা, স্যান ম্যারিনো

গ্রুপ ৩ – আজারবাইজান, ফ্যারো আইল্যান্ড, মাল্টা, কসোভো

গ্রুপ ৪ – মেসিডোনিয়া, আলবেনিয়া, লিখটেন্সটাইন, জিব্রালটার