মুস্তাফিজে ভরসা বাংলাদেশ কোচ রাসেল ডোমিঙ্গোর

ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটেই বোলিং বিভাগে বাংলাদেশের ভরসার নাম মুস্তাফিজুর রহমান। কিন্তু বিরাট সম্ভাবনা নিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখা মুস্তাফিজের বোলিংয়ের ধার আগের মতো নেই। আজকাল নিজের কাটার দিয়ে কোনোভাবেই ব্যাটসম্যানদের ভয়ের কারণ হতে পাচ্ছেন না তিনি। তবুও মুস্তাফিজেই ভরসা রাখছেন বাংলাদেশ কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। খারাপ সময়ে শিষ্যের পাশে দাঁড়িয়ে অভিজ্ঞতাকেই বড় করে দেখছেন প্রধান কোচ।

ভারতের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে আশানুরূপ বল করতে পারেননি মুস্তাফিজ। কার্যকর বোলিং করতে পারেননি শফিউল ইসলাম ও আল-আমিন হোসেনরাও। পেস বিভাগের তিনজনই ছিলেন বেশ খরুচে। বিশেষ করে মুস্তাফিজ। ৩.৪ ওভার বোলিং করে সর্বোচ্চ ৩৫ রান দিয়েছেন তিনি। বাকিদের মধ্যে ১১ ইকোনোমিতে ২৩ রান দিয়েছেন শফিউল, আল আমিন দিয়েছেন ৩২ রান। এত রানের বিনিময়ে উইকেটের দেখা পাননি কেউই। সব মিলিয়ে পেস বোলিং নিয়ে বেশ চিন্তা করতে হচ্ছে বাংলাদেশকে।

আগামীকাল রোববার সিরিজের শেষ ম্যাচে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ-ভারত। তার আগে আজ শনিবার ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে আসেন বাংলাদেশ কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। বোলিং বিভাগে ব্যর্থতা আড়ালে রেখে বরং শিষ্যদের ওপর আস্থা রাখলেন প্রধান কোচ।

মুস্তাফিজ ভালো খেলছেন না বলে মনে করেন কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে ডমিঙ্গো বলেন, ‘আমি তা মনে করি না। মুস্তাফিজ যথেষ্ট ভালো একজন বোলার। একজন ভালো ব্যাটসম্যান যেমন দুই-তিন ম্যাচে খারাপ খেলতে পারে। ঠিক তেমনই একজন ভালো বোলারও ভেজা বলে, ব্যাটিংস্বর্গে বোলিংয়ে তুলনামূলক ভালো নাও করতে পারে। কিন্তু মুস্তাফিজ আমাদের দলের অন্যতম অভিজ্ঞ বোলার। তার আইপিলে একাধিক মৌসুম খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে। তাই আমি করি না, সে খারাপ খেলেছে। আশা করি সামনের দিকে সে তার ফর্ম ফিরে পাবে।’

পেসারদের ফর্মহীনতা নিয়ে বাংলাদেশ কোনো সমস্যার মুখোমুখি হয়েছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে কোচ বলেন, ‘না, একদমই না। প্রথম দিন আমাদের বোলিং খুবই ভালো হয়েছিল। দ্বিতীয় ম্যাচে শিশির ভেজা বলে বোলিং করতে হয়েছে, উইকেটও ছিল ব্যাটসম্যানদের পক্ষে। পাশাপাশি রোহিত এদিন দুর্দান্ত ফর্মে ছিল। এটাই টি-টোয়েন্ট ক্রিকেট। তাই সব মিলিয়ে বলব পেস বিভাগে আমাদের কোনো সমস্যা নেই।’