মিলান ডার্বিতে কাল মুখোমুখি ইন্টার ও এসি মিলান

0
7

সিরি-এ লিগে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষস্থান দখলের লড়াইয়ে কাল রোববার মিলান ডার্বিতে মাঠে নামছে দুই নগর প্রতিদ্বন্দ্বী এসি মিলান ও ইন্টার মিলান। এ নিয়ে মৌসুমে তৃতীয়বারের মত মিলানের দুই জায়ান্টরা একে অপরের মোকাবেলা করতে যাচ্ছে। এর মাধ্যমে আবারো জমাট লড়াইয়ে মেতে উঠবেন দুই দলের দুই বিদেশী তারকা জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ ও রোমেলু লুকাকু।

এন্টোনিও কন্তের ইন্টার শেষ ম্যাচে ল্যাজিওকে ৩-১ গোলে পরাজিত করে এসি মিলানকে এক পয়েন্টের ব্যবধানে পিছনে ফেলে সিরি-এ টেবিলের শীর্ষস্থানে উঠে এসেছে। ম্যাচে দুই গোল করেছেন বেলজিয়ান তারকা লুকাকু। অন্যদিকে গত সপ্তাহের শেষে স্পেজিয়ার কাছে ২-০ গোলে পরাজিত হয়ে দ্বিতীয় স্থানে নেমে গেছে এসি মিলান।

বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা টেবিলের তলানিতে থাকা নবাগত ক্রোটনের বিপক্ষে জয়ের মাধ্যমে পরাজয়ের বৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসতে চায়। নাপোলির কাছে সিরি-এ লিগের পরাজয়ের পর পোর্তোর কাছেও বুধবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্রথম লেগে ২-০ গোলে পরাজিত হয়ে আত্মবিশ্বাসের ঘাটতি দেখা গেছে জুভেন্টাস শিবিরে। এই মানসিকতা থেকে বেরিয়ে আসাই এখন কোচ আন্দ্রে পিরলোর সামনে মূল চ্যালেঞ্জ।

ইউরোপীয়ান প্রতিযোগিতা থেকে কিছুটা আগেভাগে ছিটকে পড়ায় ইন্টার এখন শুধুমাত্র সিরি-এ নিয়েই চিন্তা করছে। যে কারনে কিছুটা হলেও এগিয়ে রয়েছে ইন্টার। এদিকে ইউরোপা লিগে রেড স্টার বেলগ্রেডের সাথে ২-২ গোলে ড্র করে পয়েন্ট হারানোর তিক্ত অভিজ্ঞতা নিয়ে মাঠে নামছে মিলান। তার উপর মিডফিল্ডার ইসমায়েল বেনাকারের ইনজুরি মিলান কোচ স্টেফানো পিউলিকে দু:শ্চিন্তায় ফেলেছে। ঐ ম্যাচের পর পিউলি বলেছিলেন, ‘এটা সত্যিকারের এসি মিলানের চেহারা নয়।’

এবারের মৌসুমে তৃতীয় মিলান ডার্বিতে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে এসি ও ইন্টার মিলান। লিগের প্রথম ম্যাচে মিলান ২-১ গোলে জয়ী হয়েছিল। এই একই স্কোরলাইনে ইতালিয়ান কাপের কোয়ার্টার ফাইনালে জিতেছিল ইন্টার। গত ছয়বারের মোকাবেলায় পাঁচ বারই জিতেছে ইন্টার। কিন্তু ২০১০-১১ মৌসুমের পর প্রথমবারের মত ইন্টারের বিপক্ষে লিগে উভয় ম্যাচেই জেতার সুযোগ এসেছে এসি মিলানের সামনে।

ইন্টারের থেকে সাত পয়েন্ট পিছিয়ে তৃতীয় স্থানে থাকা রোমার প্রতিপক্ষ ১৫তম স্থানে থাক বেনেভেন্টো। স্পোর্টিং ব্রাগাকে ইউরোপা লিগে ২-০ গোলে পরাজিত করা রোমা জয়ের ধারায় রয়েছে। রোমার থেকে এক পয়েন্ট পিছিয়ে চতুর্থ স্থানে রয়েছে জুভেন্টাস। ইনজুরি শঙ্কায় রয়েছে তুরিনের জায়ান্টরা। লিওনার্দো বনুচ্চি, গিওর্গিও চিয়েলিনি, আর্থার, হুয়ান কুয়াড্রাডো, পাওলো দিবালা ও আলভারো মোরাতাকে নিয়ে সংশয়ে রয়েছেন পিরলো।

রোববার সিরি- এ লিগের আরেক ম্যাচে মাঠে নামছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের দুই প্রতিদ্বন্দ্বী আটালান্টা ও নাপোলি । জেনারো গাত্তুসোর নাপোলি ইউরোপা লিগের শেষ ম্যাচে গ্রানাডার কাছে পরাজিত হয়েছে। এছাড়া ইনজুরির তালিকায় দীর্ঘ হওয়ায় শঙ্কা প্রকাশ করেছেন গাত্তুসো । ইতোমধ্যেই এই তালিকায় যুক্ত হয়েছেন দ্রিয়েস মার্টিনস, কোস্টাস মানোলাস, হার্ভিং লোজানো ও এলসেই হায়াজ। যদিও কালিদু কুলিবালি ও ফউজি গুলাম করোনা ভাইরাস থেকে সুস্থ হয়ে মাঠে নামার সবুজ সঙ্কেত পেয়েছেন।
নাপোলি ও আটালান্টার সাথে সমান পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের সপ্তম স্থানে থাকা ল্যাজিও ঘরের মাঠে আতিথ্য দিবে সাম্পদোরিয়াকে।