মাঠে নামছে ইউরোপের সব জায়ান্টরা

0
12

ক্লাব ফুটবলের বিরতিতে আজ থেকে আবারও শুরু হচ্ছে আন্তর্জাতিক ম্যাচ। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স ও ইউরোপ সেরা পর্তুগালের সাথে নামছে বাকি সব জায়ান্টরাই।

আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে ডেনমার্কের বিপক্ষে মাঠে নামবে সুইডেন। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ১২টায়।
দু’দলের পরিসংখ্যানে দেখা যায় ২০১১ থেকে ১৮ পর্যন্ত ৬ বার মুখোমুখি হয় দু’দল। যার মধ্যে দুটি করে ম্যাচ জিতেছে দু’দল। বাকি দুটি ম্যাচ হয়েছে ড্র। শেষ ৫ ম্যাচের হিসেব দেখলে অবশ্য এগিয়ে রাখা যায় ডেনমার্ককে। কারণ নিজেদের শেষ ৫ ম্যাচে তিনটি জয় তুলে নিয়েছে ডেনমার্ক। যেখানে সুইডেন জিতেছে মাত্র একটিতে।
রাত দুইটা দশে ফিনল্যান্ডকে আতিথ্য দেবে ফ্রান্স। আর রাত পৌনে দুইটায় অ্যান্ডোরাকে আতিথ্য দেবে পর্তুগাল। তবে রাতের সবচেয়ে হাইভোল্টেজ ম্যাচে মুখোমুখি হবে নেদারল্যান্ড ও স্পেন। একই সময় চেক প্রজাতন্ত্রের বিপক্ষে লড়বে জার্মানি ও বেলজিয়ামের প্রতিপক্ষ সুইজারল্যান্ড। ঘরের মাঠে ইতালি লড়বে এস্তোনিয়ার বিপক্ষে।

 

২০২০-এ শেষবারের মত জাতীয় দলের জার্সিতে এক হয়েছেন তারকা ফুটবলাররা। সবচেয়ে বড় ম্যাচ আমস্টারডামের ইউহান ক্রুইফ স্টেডিয়ামে। সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন স্পেনের মুখোমুখি নেদারল্যান্ডস।

পূর্বসূরী ক্রুইফ যতটা বড় তারকা ছিলেন ডাচদের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স ঠিক তার বিপরিতে। নতুন কোচ ফ্রাঙ্ক ডি বোয়ের অধীনে তিন ম্যাচে এক হার আর দুই ড্র। নিজের রাজত্বের শুরু করতে চান নতুন কোচ।

ছন্দময় ডাচ ফুটবলের প্রেমে আগে থেকেই হাবুডুবু খাচ্ছেন স্পেন কোচ লুইস এনরিকে। তিনি আবার ভুগছেন জাতীয় দলের কোচদের চিরায়ত সমস্যায়।

যুব দলের ফুটবলার মার্কোস লরেন্তেকে প্রথমবার দলে ডেকেছেন কোচ লুইস এনরিকে। পাঁচ বছর পর দেখা হচ্ছে দুই দলের। শেষ দেখায় লা রোহা ফিউরিরা জিতেছিলো ২-০ গোলে।

ইউরোপের সব দলেরই উদ্দেশ্য একটা। নেশন্স লিগের দুই ম্যাচের আগে স্বল্প সময়ে নিজ স্কোয়াডকে সাজিয়ে নেয়া। পরখ করা। কিন্তু এন্ডোরার মত দুর্বল দলের বিপক্ষে খেলে যে তার কিছুই হবে না তা সরল স্বীকারোক্তি দিয়েছেন পর্তুগাল কোচ ফার্নান্দো সান্তোস।

তারপরও একমাত্র স্বান্ত্বনা হতে পারে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর প্রত্যাবর্তন। করোনা আক্রান্ত হয়ে জাতীয় দল থেকে বিদায় নিয়েছিলেন। আবারও ফিরেছেন কিছুটা ইনজুরি শঙ্কা নিয়ে।

লড়াইটা যে অসম তার প্রমাণ পরিসংখ্যান। সাত ম্যাচ অপরাজিত পর্তুগাল। আর আট ম্যাচ ধরে জিততে পারে না এন্ডোরা। দু দলের পাঁচ দেখায়ও শতভাগ জয় সেলেসাও দা কুইনাসদের।

বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সের লড়াইটা ফিনল্যান্ডের বিপক্ষে। নবম দেখার অপেক্ষায়। আগের আট ম্যাচে শতভাগ জয় ফ্রান্সের। শেষ পাঁচ ম্যাচেতো কোনো গোলই খায়নি।

দিদিয়ের দেশমের ফ্রান্স অপ্রতিরোধ্য। গত বছরের জুন থেকে এখনো অপরাজিত, টানা ১২ ম্যাচ।