বড় সাইনিং করে বিপাকে লা লিগার দলগুলো

0
11

ইডেন হ্যাজার্ড, জুয়াও ফেলিক্স ও এন্টোনিও গ্রীজম্যানকে দলে নিতে ট্রান্সফার মার্কেটে লা লিগার তিন শীর্ষ দল রিয়াল মাদ্রিদ, এ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ ও বার্সেলোনাকে সম্মিলিতভাবে ৩৪৬ মিলিয়ন ইউরো ব্যয় করতে হয়েছে। কিন্তু এই তারকাদের কাছ থেকে কাঙ্খিত পারফরমেন্স এখনো পায়নি শীর্ষ তিন ক্লাব।

রেকর্ড ১০০ মিলিয়ন ইউরোতে রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেয়া বেলজিয়াম অধিনায়ক হ্যাজার্ড দীর্ঘদিনের ইনজুরি কাটিয়ে সম্প্রতি দলে ফিরেছেন। কিন্তু শনিবার সেল্টা ভিগোর বিপক্ষে ২-০ গোলের জয়ের ম্যাচটিতে তিনি মূল একাদশে ছিলেন না। মূলত ফিটনেস সমস্যাই এখানে দায়ী।
২০১৪ সালে মাত্র চার মিলিয়ন ইউরোতে রিয়ালে আসা মার্কো আসেনসিও হ্যাজার্ডের পরিবর্তে প্রথম দলে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছেন। নিজে এক গোল করে এবং সতীর্থকে দিয়ে এক গোল করিয়ে জিনেদিন জিদানের আস্থার প্রতিদান দিয়েছেন আসেনসিও। ফ্রেঞ্চ কোচ জিদান বলেছেন ইনজুরির কারনে হ্যাজার্ডকে নিয়ে তিনি কোন ঝুঁকি নিতে চাচ্ছেননা। ২০১৯ সালে চেলসি থেকে আসার পর এ পর্যন্ত মাত্র ১৭টি ম্যাচে মূল একাদশে সুযোগ পেয়েছিলেন হ্যাজার্ড।

রোববার আলাভেসের বিপক্ষে এ্যাওয়ে ম্যাচে এ্যাথলেটিকোর মূল দল থেকে ফেলিক্সের বাদ পড়াটা অনেককেই বিস্মিত করেছে। তার পরিবর্তে মূল দলে ছিলেন এ্যাঞ্জেল কোরেয়া। ২০ বছর বয়সী পর্তুগীজ ফরোয়ার্ড ফেলিক্স দ্বিতীয়ার্ধে খেলতে নেমে লুইস সুয়ারেজকে দিয়ে শেষ মিনিটে জয়সূচ গোলটি করিয়েছেন। ম্যাচে সুয়ারেজের ৯০ মিনিটের গোলে এ্যাথলেটিকো ২-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে। এ্যাথলেটিকো কোচ দিয়েগো সিমিওনে বলেছেন, ‘এটা সম্পূর্ণ আমার সিদ্ধান্ত। কোরেয়ার কঠোর পরিশ্রমের ওপর আমার আস্থা আছে। যে কারনে রাইট উইংয়ে আমি তার বিকল্প কাউকেই ভাবতে পারিনা। ৯০ মিনিট পর্যন্ত আমরা ম্যাচ ধরে রেখেছিলাম। আর ফেলিক্সকে পরে নামানোটাও কৌশলেরই একটি অংশ ছিল।’

বেনফিকা থেকে ১২৬ মিলিয়ন ইউরোতে এ্যাথলেটিকোতে যোগ দিয়েছিলেন ফেলিক্স। মাঝে মাঝে তার ফিটনেস নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেন সিমিওনে। যদিও কোচের একটি আস্থার জায়গা তিনি ইতোমধ্যেই আদায় করে নিয়েছেন। যদিও গত মাসে রিয়ালের বিপক্ষে মাদ্রিদ ডার্বিতে ফেলিক্সের একটি আচরনে বেশ ক্ষুব্ধ হয়ে তাকে মাঠ থেকে তুলে নিয়েছিলেন সিমিওনে।

১২০ মিলিয়ন ইউরোতে এন্টোনিও গ্রীজম্যান এ্যাথলেটিকো থেকে বার্সেলোনায় যোগ দেবার পরপরই ফেলিক্স এ্যাথলেটিকোতে যোগ দেন। হুয়েস্কার বিপক্ষে গতকাল লা লিগায় ১-০ গোলের কষ্টার্জিত জয়ের ম্যাচে মূল একাদশে ছিলেন না গ্রীজম্যান। বার্সেলোনায় আসার পর থেকেই কার্যত গ্রীজম্যানকে নিয়ে বার্সার নতুন কোচ রোনাল্ড কোম্যান ততটা আগ্রহী ছিলেননা। বরং তার পরিবর্তে ড্যানিশ তারকা মার্টিন ব্রেথওয়েইটের ওপরই বেশী আস্থা রেখেছেন কোম্যান।