যেকারণে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের অনুদান বন্ধ করে দিলো ফিফা

0
158

অর্থ ব্যয়ে স্বচ্ছতার অভাবের অভিযোগে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের অনুদান বন্ধ করে দিয়েছে ফিফা। অডিট ও আর্থিক লেনদেনের প্রক্রিয়ায় সন্তুষ্ট নয় সংস্থাটি। এ বছর তিন মাস পেরিয়ে গেলেও এখনো কোনো অর্থ ছাড় হয়নি। এ নিয়ে কাল ফিফার সঙ্গে সভায় বসবে বাফুফে। 

বেশকিছুদিন আগে ঘটনাটি ঘটলেও বার বার তা অস্বীকার করে আসছিলেন বাফুফে সাধারন সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ। তবে শেষ পর্যন্ত ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বাফুফের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও ফিন্যান্স কমিটির চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম মুর্শেদী জানিয়েছেন, ‘ফিফা আমাদের আর্থিক হিসেবে গড়মিল খুঁজে পেয়েছে। তাই অনুদান বন্ধ রয়েছে। ফিফার সাথে আমাদের এই বিষয়ে মঙ্গলবার সভা রয়েছে। মঙ্গলবারের সভার পরেই মূলত এই বিষয়ে স্পষ্ট করে বলা যাবে।’

দেশের ফুটবল কার্যক্রম গতিশীল রাখতে বড় অংকের অর্থ যোগান দেয় ফিফা। প্রতি বছর বরাদ্দ প্রায় সাড়ে চার লাখ ডলার। বাংলাদেশি টাকায় যা প্রায় চার কোটি। কিন্তু ২০২১ এর প্রথম কোয়ার্টারে এখনো কোনো টাকা পায়নি বাফুফে। নাখোশ ফিফা ৩০ মার্চ এ বিষয়ে ফুটবল ফেডারেশনকে চিঠি দিয়েছে।

ফিফা বাফুফের হিসাবে যে গড়মিল খুঁজে পেয়েছে এজন্য চীফ ফিনানশিয়াল অফিসার আবু হোসেনকে দায়ী করেছেন আব্দুস সালাম মুর্শেদী। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমাদের সিএফওর কাজে মোটেও খুশি না। তিনি সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করতে পারেননি বিধায় আমাদের এই রকম পরিস্থিতিতে পড়তে হচ্ছে। আমার ফিন্যান্স কমিটির সভায় তার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেব।’

করোনাকালীন সময়ে ফিফা তাদের সদস্যভুক্ত দেশগুলোকে কোভিড ফান্ড দিলেও বাংলাদেশ সে ফান্ড পায়নি। যদিও বিভিন্ন সূত্রের দাবি, ফিফা নিয়মিত বাফুফেকে যে অনুদান দেয় সেটাও নাকি বন্ধ। প্রায় দুই মাস ধরে বেতন আসছে না স্থানীয় কোচদের।

সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে মঙ্গলবার ফিফার সঙ্গে বাফুফের ভার্চুয়াল সভা। নিজেদের অবস্থান তুলে ধরবে ফেডারেশন। ফিফার সাথে সভা শেষে ফেডারেশনের অর্থ বিভাগে এবার পরিবর্তনের আভাস সালাম মুর্শেদীর।