বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়মে একদিনে তিন ম্যাচ

0
26

লম্বা বিরতি শেষে শুক্রবার থেকে আবারো মাঠে ফিরছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল)। করোনা সংক্রমণের মাঝে দিনে তিনটি করে ম্যাচ ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। সবগুলো ম্যাচই হবে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম।

উদ্বোধনী ম্যাচে উত্তর বারিধারার প্রতিপক্ষ বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংস। বিকাল চারটায় শুরু হবে ম্যাচটি। একই ভেন্যু বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা সাতটায় পুলিশ এফসি খেলেব আবাহনী লিমিটেডের বিপক্ষে এবং রাত নয়টা ব্রাদার্স ইউনিয়ন লড়াই করবে শেখ রাসেলের। যদিও নিজেদের প্রথম ম্যাচ খেলতে অপারগতা জানিয়ে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনকে (বাফুফে) চিঠি দিয়েছে ব্রাদার্স।

এমনিতেই মাঠের বেহাল দশা।  তারমধ্যে তিন ম্যাচ করে অনুষ্ঠিত হবে। বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের জন্য যা নতুন এক চ্যালেঞ্জ।

তড়িঘড়ি করে হয়তো প্রস্তুতও হয়ে যাবে নিচের সারির ক্লাবগুলো। সূচিতে ১১ দিনের ব্যস্ততা। এরপরই এএফসি কাপ ও অন্তর্জাতিক উইন্ডোতে দীর্ঘ দেড়মাসের বিরতি।

মধ্যবর্তী দলবদলের সময় সবচেয়ে বেশি সংখ্যাক ১৪ জন ফুটবলার দলে ভিড়িয়েছে ব্রাদার্স। দ্বিতীয় লেগে তাদেরই অংশগ্রহন অনিশ্চিত। আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে লিগ কমিটির চেয়ারম্যান গোপীবাগের দলটিকে প্রস্তুতির সময় দিয়ে সূচি করার আশ্বাস দিয়েছিল। অথচ বাস্তবতায় প্রথম দিনেই আছে ঐতিহ্যবাহীদের ম্যাচ। তাতে বাফুফে কে চিঠি দিয়ে শুক্রবার ম্যাচ খেলতে পারবে না বলে জানিয়েছে ব্রাদার্স।

দ্রুততম সময়ে শেষ হওয়া প্রথম লেগের পরিসংখ্যানটা সমৃদ্ধ। চার হ্যাটট্টিকে মোট গোল সংখ্যা ২৩২। যার মধ্যে আত্নঘাতী মাত্র ৩। যেখানে যথারীতি আধিপত্য বিদেশীদের। শীর্ষ ৫ গোলদাতার তালিকায়ও নেই দেশীয় কেউ। লিগ লিডারদের ব্রাজিলিয়ান রিক্রুট রবসন রবিননিও সর্বোচ্চ ১২ গোল। শেখ জামালের গাম্বিয়ান ফরোয়ার্ড পা ওমর জোবেরও গোল সমান। কিংস নাম্বার নাইন রাউল বেসেরা তৃতীয় একগোল কম করে।

দেশীয়দের মধ্যে শীর্ষ স্থানে মিডফিল্ডার আবদুল্লাহ। গোল সংখ্যা ৬। সংখ্যাটা একই উত্তর বারিধারার সুমন রেজার। এক গোল কমে তৃতীয় স্থানে আরামবাগের নিশাত জামান উচ্ছ্বাস।

পয়েন্ট টেবিলে বসুন্ধরা কিংস ঢেড় এগিয়ে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা শেখ জামালের সঙ্গে করপোরেট ক্লাবটির তফাত ৮ পয়েন্টের।