বাঁচা-মরার লড়াইয়ে মুখোমুখি ম্যান সিটি-রিয়াল মাদ্রিদ

0
10

জিনেদিন জিদান চ্যাম্পিয়ন্স লিগে আবারও মুখোমুখি হতে যাচ্ছে পেপ গার্দিওলার। বিশ্বফুটবলের অন্যতম সেরা দুই কোচের দ্বৈরথ। আজ রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোতে মুখোমুখি হবে রিয়াল মাদ্রিদ ও ম্যানচেস্টার সিটি।

২৪৭ ম্যাচে ১৪টি ট্রফি জিতে বছর আটেক আগে যখন বার্সেলোনা ছেড়েছিলেন গার্দিওলা, অধিকাংশ ফুটবল পন্ডিতই ভাবতে পারেননি তাঁর এই কীর্তি কেউ কোনও দিন ভাঙতে পারবেন। কিন্তু জ়িদানের অভিধানে অসম্ভব শব্দটাই যে নেই। ফুটবলার হিসেবে ফ্রান্সকে প্রথম বিশ্বকাপ এনে দিয়েছিলেন দুর্ধর্ষ ব্রাজিলকে হারিয়ে। সেটাও তো ছিল অনেকের কাছে কল্পনার বাইরে। রিয়াল মাদ্রিদ ম্যানেজার ইতিমধ্যেই ১১টি ট্রফি জিতেছেন। পরিসংখ্যান অনুযায়ী ১৯টি ম্যাচ অন্তর একটি ট্রফি জিতেছেন তিনি। গার্দিওলা ট্রফি প্রতি ২২টি ম্যাচ।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর দ্বিতীয় পর্বের ম্যাচে অঙ্কের বিচারে এক কদম এগিয়ে থেকেই মাঠে নামবে পেপ গার্দিওলার দল।

 

কারণ, প্রথম পর্বে মাদ্রিদে গিয়ে বের্নাবাউতে ম্যান সিটি ২-১ হারিয়েছিল রিয়ালকে। এ বার লড়াই ঘরের মাঠ দর্শকশূন্য এতিহাদ স্টেডিয়ামে। তার উপরে অবিশ্বাস্য ফর্মে থাকা রিয়াল অধিনায়ক সার্জিও রামোস নির্বাসিত থাকায় খেলতে পারবেন না। গ্যারেথ বেলকেও বাদ দিেয়ছেন জিদান।

সাংবাদিকদের জিদান বলেছেন, বেল নিজেই খেলতে চায়নি। হাঁটুতে অস্ত্রোপচার হওয়ায় সার্জিও আগুয়েরোকে পাচ্ছে না ম্যান সিটি। বৃহস্পতিবার সাংবাদিক সম্মেলনে গার্দিওলা বলেছেন, ‘‘প্রথম পর্বের ম্যাচ অনেক দিন আগে খেলেছি। এই ম্যাচটা একেবারেই আলাদা। রিয়াল মাদ্রিদ সব হিসেব গুলিয়ে দিতে পারে। যা ভাবা হয়, তার ঠিক উল্টোটাই ওরা করে।’’

ম্যান সিটি ম্যানেজার অবশ্য দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে খেলা নিয়ে একেবারেই হতাশ নন। বলেছেন, ‘‘এই পরিস্থিতিতে স্টেডিয়ামে দর্শকদের প্রবেশের ছাড়পত্র দেওয়ার চেয়েও বেশি গুরুত্বপূর্ণ শিশুদের স্কুলে ফেরা।’’