নিজেকে হারিয়ে খুঁজছেন হেমন্ত ভিনসেন্ট বিশ্বাস 

0
20

রানা শেখ: ২০১৩ সালে ভারতের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে অভিষেকেই গোল করে সবাইকে চমকে দিয়েছিলেন হেমন্ত। এরপর সেই সময়ের জাতীয় দলের সহকারী কোচ রেনে কোস্টার স্বদেশ নেদারল্যান্ডসের এফসি টোয়েন্টি ক্লাবে ট্রায়ালের সুযোগ করে দেন তাকে। নেপালের বিমল ঘাড়তি মাগার ও হেমন্ত একই সঙ্গে ট্রায়াল দিয়েছিলেন ডাচ ক্লাবে। দুজনে দুই সপ্তাহ অনুশীলনের সুযোগও পেয়েছিলেন।

২০১৫ বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপে বাংলাদেশের ১০ নাম্বার জার্সি পড়ে মাঠ মাতিয়েছিলেন এই মিডফিল্ডার।
পুরো টুর্নামেন্টেই দারুণ খেলেছিলেন তিনি।

২০১৮ সালে শেষ বারের মত জাতীয় দলের ক্যাম্পে ছিলেন তিনি। কিন্তু ইঞ্জুরি ও নিজের ব্যক্তিগত কারনে জাতীয় দলে স্থায়ী হতে পারেননি এই সুঠোম দেহের অধীকারী মিডফিল্ডার।

ক্লাব পর্যায়েও তেমন আশানুরূপ পার্ফমেন্স করতে পারছেন না। তবে তার আশা আবারো সেরা পার্ফমেন্স করেই জাতীয় দলে ব্যাক করবেন। এই সিজনে তিনি শেখ রাসেলের হয়ে খেলবেন।

যারা হেমন্তর খেলা পছন্দ করেন তারাও অবশ্যই চাইবে সে যেনো আবারো নিজের সেরাটা দিয়ে জাতীয় দলে ফিরে আসুক।