দীর্ঘ পাঁচ মাস পর মাঠে গাড়াচ্ছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ

0
12

করোনা ভাইরাস মাহামারির কবলে পড়ে দীর্ঘ পাঁচ মাসের বিরতির পর  শুক্রবার থেকে ফের মাঠে ফিরতে যাচ্ছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের খেলা। শেষ ষোলোর বাকী খেলাগুলো অনুষ্ঠিত হবার পর টুর্নামেন্টের কোয়ার্টার ফাইনাল সহ বাকী ম্যাচগুলো অনুষ্ঠিত হবে লিসবনে। ২৩ আগস্ট অনুষ্ঠিত হবে ফাইনাল।

শেষ ষোলো’র যেসব ম্যাচ এখনো বাকী আছে তার একটি বিশ্লেষণ নিচে দেয়া হল।

জুভেন্টাস বনাম লিওঁ
ম্যাচ শুরু শুক্রবার বাংলাদেশ সময় রাত ১টা (১ম লেগ লিওঁ ১-০ গোলে জয়ী)

প্রায় ছয় মাস আগে শেষ ষোলোর প্রথম লেগে অলিম্পিক লিওঁ ঘরের মাঠে জুভেন্টাসকে ১-০ গোলের ব্যবধানে হারিয়েছিল। আনুমানিক ৬০ হাজার দর্শক উপভোগ করেছিল ম্যাচটি। ম্যাচের একমাত্র গোলটি করেছিলেন লুকাস টসার্ট। তবে এখন অনেক কিছুরই পরিবর্তন ঘটেছে। লুকাস পাড়ি জমিয়েছেন হার্থা বার্লিনে। জার্মান লিগেও এখন ক্লাবটির পড়ন্ত দশা। সপ্তম অবস্থান নিয়ে লিগ শেষ করেছে।

ফিরতি লেগে মার্চে আলিয়াঞ্জ স্টেডিয়ামে জুভেদের বিপক্ষে খেলার কথা ছিল দ্বিতীয় লেগ। তবে সেই সময়ে করোনাভাইরাসের থাবায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছিল গোটা ইতালি। শেষ পর্যন্ত ২য় লেগ স্থগিত হয়ে যায়। এরপর করোনার কারণে ফুটবল স্থগিত হয়ে যায় প্রায় তিন মাসের জন্য। এবার আবারও ফিরেছে ইউরোপিয়ান ফুটবল। ২য় লেগে ১-০’তে পিছিয়ে থেকেই কোয়ার্টারের স্বপ্নে মাঠে নামবে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর জুভেন্টাস।

এর আগে সিরি আ’র শিরোপা ধরে রাখলেও খুব যে ভালো অবস্থায় জুভেন্টাস আছে, তা নয়। লিগে নিজেদের শেষ আট ম্যাচে জয় মাত্র দুটিতে। হেরেছে চারটিতে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে দলটি খুব করে তাকিয়ে থাকবে দলের সেরা তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর দিকে। কোয়ার্টার ফাইনালে যেতে ফিরতি লেগে কমপক্ষে ২-০ গোলে জিততে হবে মরিজিও সারির দলকে।

ম্যানচেস্টার সিটি বনাম রিয়াল মাদ্রিদ
ম্যাচ শুরু শুক্রবার বাংলাদেশ সময় রাত ১টা (১ম লেগে সিটি ২-১ গোলে জয়ী

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা থেকে কিছুদিন আগেই মুক্তি পেয়েছে সিটি। পেপ গার্দিওলার দলের জন্য এটি ছিল অন্যরকম একটি জয়। নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ায় স্বাভাবিকভাবে আরও উদ্বুদ্ধ ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের দলটি। শেষ ষোলোর প্রথম লেগে রিয়ালের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ২-১ গোলের জয় নিয়ে ফিরেছিল সিটি। আর প্রথম লেগে জয়ের কারণেই ঘরের মাঠ ইত্তিহাদ স্টেডিয়ামে নিজেদের মনোবল আরও বেশি দৃঢ় থাকবে সিটিজেনদের। আর সেই সঙ্গে তো মূল্যবান দুটি অ্যাওয়ে গোলও রয়েছে।

এই ম্যাচে গার্দিওলা দলে পাচ্ছেন না আর্জেন্টাইন তারাক স্ট্রাইকার সার্জিও আগুয়েরোকে। হাঁটুর চোটের কারণে মৌসুমের শেষাংশের পুরোটা সময়ই তাকে কাটাতে হচ্ছে মাঠের বাইরে। ওদিকে নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়ে গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচে খেলা হচ্ছে না রিয়াল অধিনায়ক সার্জিও রামোসের।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে সর্বোচ্চ ১৩ বার শিরোপা জয়ী রিয়াল মাদ্রিদ। আর চ্যাম্পিয়নস লিগের ‘রাজা’রা গত ছয় আসরের মধ্যে চারবারই শিরোপা জিতেছে।
তবে প্রথম লেগে পিছিয়ে থাকলেও জয়ের জন্য লড়াইয়ে নামবে জিনেদিন জিদানের দল।

চ্যাম্পিয়নস লিগের ইতিহাসে কোচ জিনেদিন জিদান কখনোই ফাইনালের আগে বাদ পড়েননি। প্রথম লেগের হারে পিছিয়ে থাকলেও ফুটবল পুনরায় শুরু হওয়ার পর রিয়াল বদলে গেছে অনেকটা। বার্সেলোনাকে পেছনে ফেলে লা লিগার মুকুট পুনরুদ্ধার করেছে জিনেদিন জিদানের দল; চ্যাম্পিয়ন্স লিগের জন্যও সঞ্চয় করেছে বাড়তি আত্মবিশ্বাস।

বায়ার্ন মিউনিখ-চেলসি
ম্যাচ শুরু শনিবার বাংলাদেশ সময় রাত ১টা (১ম লেগে বায়ার্ন ৩-০ গোলে জয়ী)

শেষ ষোলোর দ্বিতীয় লেগ বায়ার্ন মিউনিখের জন্য কেবল লোক দেখানো। কেননা ৩-০’তে কোয়ার্টারে এক পা দিয়ে রেখেছে বায়ার্ন মিউনিখ। প্রথম লেগে চেলসিকে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত করে বেশ শক্ত অবস্থানেই আছে বেভারিয়ানরা। ওই লেগে চেলসির মাঠ স্টামফোর্ড ব্রিজ থেকে সের্গে জিনাব্রি ও রবার্ট লিওয়ানদোস্কির গোলে ৩-০ ব্যবধানের জয় নিয়ে ফিরেছে বেভারিয়ানরা।

আর তাই তো ঘরের মাঠ আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায় সর্বোচ্চ ২-০ গোলে হারলেও কোয়ার্টারে চলে যাবে বায়ার্ন। তবে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা পোলিশ স্ট্রাইকার লিওয়ানদোস্কির দল গোলশূন্য থাকবে তা অকল্পনীয়। আর টানা ৮ম বুন্দেস লিগা জয়ী দল ঘরের মাঠে জয়ের বিকল্প ভাবছেই না। এই মৌসুমে এরই মধ্যে লিওয়ানদোস্কির গোল সংখ্যা ৫১টি, ইউরোপের সেরা পাঁচ লিগের ভেতরে তার থেকে বেশি গোল করতে পারেননি কেউই।

বার্সেলোনা-নাপোলি
ম্যাচ শুরু শনিবার বাংলাদেশ সময় রাত ১টা (১ম লেগ ১-১ গোলে ড্র)

রিয়াল মাদ্রিদের কাছে লা লিগার শিরোপা হাতছাড়া করেছে বার্সেলোনা। সুতরাং শিরোপাহীন মৌসুম কাটানো থেকে দলকে রক্ষা করতে কাতালানদের সামনে আছে কেবল চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। তবে চ্যাম্পিয়নস লিগে নিজেদের শেষ পাঁচ বছর ভাল কাটেনি বার্সার। পাঁচ মৌসুমে সেমিফাইনালে আর তার আগে থেকেই বিদায় নিতে হচ্ছে লিওনেল মেসির দলকে। অন্যদিকে সিরি এ ভালো কাটেনি নাপোলিরও। আগামী মৌসুমে চ্যাম্পিয়নস লিগ খেলার একমাত্র রাস্তা নাপোলির সামনে চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়।

আঁতোয়ান গ্রিজম্যানের করা গোলে নাপোলির মাঠ থেকে কোনো রকমে ১-১ গোলে ড্র করে ফিরেছিল বার্সা। মূল্যবান একটি অ্যাওয়ে গোল থাকায় কিকে সেতিয়েনের দল আছে মোটামুটি সুবিধাজনক অবস্থানে। তবে ফিরতি লেগে নিজেদের সেরাটা দিলে বার্সাকে হারানো অসম্ভব নয় বলেই মনে করছেন নাপোলি কোচ গাত্তুসো।

এদিকে ইনজুরিতে জর্জরিত বার্সেলোনা। শঙ্কায় আছে ক্লেমেন্ট লেংলে আর স্যামুয়েল উমতিতি। দুর্বল রক্ষণভাগের কারণে কিছুটা দুঃশ্চিন্তায় বার্সা। তবে দলের সঙ্গে আছে পূর্ণ বিশ্রাম পাওয়া লুইস সুয়ারেজ, লিওনেল মেসি এবং ইনজুরি কাটিয়ে অনুশীলনে ফেরা গ্রিজম্যান।