চ্যাম্পিয়ন্স লিগে মুখোমুখি ম্যান সিটি ও বরুশিয়া ডর্টমুন্ড

0
24

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডকে কখনও হারাতে পারেনি ম্যানচেস্টার সিটি। ২০১২-’১৩ মৌসুমে গ্রুপ পর্বে দেখা হয়েছিল ইংল্যান্ড ও জার্মানির এই দুই দলের। সে বার ইতিহাদ স্টেডিয়ামে দু’দলের দ্বৈরথ ১-১ শেষ হলেও, ঘরের মাঠে জিতেছিল বরুশিয়া। তার আট মৌসুম পরে মঙ্গলবার রাতে ১টায় মুখোমুখি হতে চলেছে ম্যান সিটি ও বরুশিয়া। তবে এ বার আর লিগ পর্বে নয়। কেভিন দ্য ব্রুইন বনাম এর্লিং হালান্ডদের দ্বৈরথ কোয়ার্টার ফাইনালে।

ম্যান সিটির বিরুদ্ধে ম্যাচের আগে বরুশিয়াকে শিবিরে চিন্তা বাড়াচ্ছে চোট-আঘাত। জাডন স্যাঞ্চোকে পাচ্ছেনা তারা। তরুণ স্ট্রাইকার ইউসুফা মউকুকো-ও লিগামেন্টে চোট পেয়ে ছিটকে গিয়েছেন। বাকি মৌসুমেও মাঠে নামার সম্ভাবনা নেই তাঁর। শনিবার আইনট্রাখট ফ্রাঙ্কফুর্টের বিরুদ্ধে হারের পরে বুন্দেসলিগায় প্রথম চারে থাকার সম্ভাবনাও প্রায় শেষ বরুশিয়ার। ফলে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শীর্ষে থাকা দলের বিরুদ্ধে মাঠে নামার আগে উদ্বেগে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের ম্যানেজার এডিন তেরসিক।

অন্য দিকে ম্যানচেস্টার সিটির দায়িত্ব নেওয়ার পরে ম্যানেজার পেপ গার্দিওলা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে শেষ আটের গণ্ডি টপকাতে পারেননি। ম্যান সিটির হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতার আশা পূরণ হয়নি  সার্জিও আগুয়েরোর-ও। তাই মঙ্গলবার কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম পর্বে বড় ব্যবধানে জিতে সুবিধাজনক জায়গায় থাকতে মরিয়া তাঁরা। গুয়ার্দিওলা ভুলতে পারছেন না গত মৌসুমে লিওঁ-র বিরুদ্ধে হেরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বিদায় নেওয়ার যন্ত্রণাও। ম্যান সিটির মাঝমাঠের অন্যতম ভরসা ফের্নান্দিনহো বলছেন, ‍‘‍‘মঙ্গলবার রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম পর্বের ম্যাচ দলের সকলের কাছেই বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ।”

এই অবস্থায় ম্যান সিটি শিবির চিন্তিত বরুসিয়ার আর্লিং হালান্ডকে নিয়ে। যিনি ক্লাবের ৫০ ম্যাচে ৪৯টি গোল করে নজর কেড়েছেন। আগামী মরসুমে আগুয়েরো ক্লাব ছাড়লে এই হালান্ডকে দলে এনেই আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকারের অভাব পূরণ করা ভাবনা ঘুরছে ম্যান সিটির।