কঠোর স্বাস্থ্য নীতি মেনেই ক্লাব বিশ্বকাপ

0
16

কাতারের দোহায় অনুষ্ঠিতব্য ক্লাব বিশ্বকাপের আসর শুরু হতে দুই সপ্তাহেরও কম সময় হাতে রয়েছে আয়োজকদের। আর সেই আসরকে সামনে রেখে আয়োজকদের পক্ষ থেকে সতর্ক করে বলে দেয়া হয়েছে অংশগ্রহণকারী ক্লাবগুলোকে কঠোর স্বাস্থ্য নীতি মেনেই মাঠে নামতে হবে। করোনাভাইরাস সংক্রমণ আটকাতে টুর্নামেন্টে কোন ধরনের বিদেশী দর্শক প্রবেশের অনুমতি মেলেনি।

আগামী ৪ ফেব্রুয়ারি টুর্নামেন্ট শুরু হবে। দোহার দুটি স্টেডিয়ামে এবারের ক্লাব বিশ^কাপের আসর অনুষ্ঠিত হবে যার প্রতিটির ধারণক্ষমতা ৪০ হাজার। প্রতিটি স্টেডিয়ামে ধারণক্ষমতার ৩০ শতাংশ দর্শক প্রবেশের অনুমতি রয়েছে।

এ সম্পর্কে কাতারের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ক্রীড়া বিষয়ক উপদেষ্টা আব্দুল ওয়াহাব আল-মুসলেহ বলেছেন, ‘প্রতিটি ম্যাচের ৭২ ঘন্টার আগে প্রতিটি দর্শককে অবশ্যই পিসিআর টেস্টে উত্তীর্ণ হতে হবে। টেস্টের ফলাফল নেগেটিভ আসলেই কেবলমাত্র তারা টিকিট হাতে পাবেন।’

দোহায় অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো বলেছেন, সামাজিক দূরত্ব, মাস্ক পরিধান, কাতারের ভাইরাস ট্রেসিং এ্যাপ ব্যবহার ও স্যানিটাইজার বাধ্যতামূলক। কাতারের ভাইরাস সংক্রমনের ঝুকি মাথায় রেখে কোন ধরনের আন্তর্জাতিক সমর্থক স্টেডিয়ামে প্রবেশ করতে পারবেন না। ফ্যান জোনসহ পুরো স্টেডিয়ামে কোন ধরনের ইভেন্ট আয়োজন নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

কাতারের করোনাভাইরাস পরিস্থিতি ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রতি এক লাখ মানুষের মধ্যে গত সপ্তাহে গড়ে ৫৯.৫টি নতুন কেস ধরা পড়েছে যা আগের সপ্তাহগুলোর থেকে ১৫ শতাংশ বেশী। যদিও করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ক্রমেই কমতে শুরু করেছে। মধ্যপ্রাচ্যের অন্যান্য দেশের তুলনায় কাতারে মৃত্যু সংখ্যা সবচেয়ে কম। ইতোমধ্যেই কাতারে প্রবেশ করেছে ভাইরাসের নতুন ধরন। যে কারনে মুসলেহ বলেছে, ‘ধীরে সংক্রমন বৃদ্ধির অর্থ এই নয় যে আমরা একে আরো বেশী বাড়ার সুযোগ দিব।’

গত বছরের শেষের দিকে এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ চলাকালীন সৌদি আরবের আল-হিলার দলে করোনাভাইরাস ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করেছিল। তবে সবকিছু মাথায় রেখে বেশ কিছু সতর্কতামূলক কার্যক্রম আয়োজকরা হাতে নিয়েছেন বলে মুসলেহ জানিয়ছেন। এর আগে ১৫ জানুয়ারি অকল্যান্ড সিটি ক্লাব বিশ্বকাপ থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছিল। নিউজিল্যান্ড সরকারের কোয়ারেন্টাইন নীতি মেনে এই ধরনের টুর্নামেন্টে অংশ নেয়া সম্ভব নয় বলেই অকল্যান্ড সিটি খেলতে অস্বীকৃতি জানায়।

এদিকে ফিফা জানিয়েছে টুর্নামেন্টে অংশগ্রহনকারী প্রতিটি দলের খেলোয়াড়, কোচিং স্টাফ ও অন্যান্য কর্মকর্তাদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তার বিষয়টি সর্বোচ্চ সতর্কতার সাথে দেখা হচ্ছে। আর এ বিষয়ে তারা স্থানীয় আয়োজক কমিটির সাথে নিবিড়ভাবে কাজ করছে।

আগামী ৪-১১ ফেব্রুয়ারি ক্লাব বিশ্বকাপ ২০২০ অনুষ্ঠিত হবে। এবারের টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণকারী দলগুলো হচ্ছে কাতারের ক্লাব আল দুহাইল, মিশরের আল আহলি, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ বিজয়ী বায়ার্ন মিউনিখ, উলসান হুন্দাই, টাইগার্স ইউএএনএল ও কনমেবল লিবারটেডর্সের বিজয়ী দল, আগামী ৩০ জানুয়ারি যা নির্ধারিত হবে।

টুর্নামেন্টের প্রথম রাউন্ডের কোন ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবেনা। এছাড়া টুর্নামেন্টের অন্যান্য ফর্মেট অপরিবর্তিত থাকবে। সবগুলো ম্যাচই সদ্য উদ্বোধন হওয়া ২০২২ কাতার বিশ্বকাপের দুই স্টেডিয়াম আহমাদ বিন আলি ও এডুকেশন সিটি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে।