‘ওই ঘটনার জন্য আজীবন ক্ষমা চেয়ে যাব’- বেন স্টোকস

0
180

রোমাঞ্চকর এক বিশ্বকাপ ফাইনাল দেখলো ক্রিকেট দুনিয়া। গতকাল রোববারের ফাইনাল হয়ে গেল লর্ডসে, তা যে বিশ্বকাপ ইতিহাসের পাতায় বড় জায়গা নিয়ে নিল, এ নিয়ে সন্দেহের অবকাশ নেই।

ইংল্যান্ড বনাম নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার ফাইনালের জয়ী দল ইংল্যান্ড। জয়ের নায়ক অলরাউন্ডার বেন স্টোকস। নির্ধারিত পঞ্চাশ ওভারের ইনিংসে পাঁচটি চার ও দুটি ছক্কায় ৯৮ বলে করেছেন ৮৪ রান। এরপর সুপার ওভারে করেছেন আরো ১০ রান। শতরান করতে পারেননি, কিন্তু স্টোকসের এই ৯৪ রান ইংল্যান্ডকে এনে দিয়েছে প্রথম বিশ্বকাপ। স্বাভাবিকভাবেই ম্যান অব দ্য ম্যাচ স্টোকসই।

তবে বিজয়ের আনন্দের পাশাপাশি একটা দাগ কি রয়ে গেল বেন স্টোকসের মনে? নির্ধারিত ৫০ ওভারের শেষ ওভারের খেলা চলছিল। ৫০তম ওভারের চতুর্থ বলে ২ রানের জন্য দৌড় দেন স্টোকস। দ্বিতীয় রান পূর্ণ করার সময় প্রাণপণে লাফ দেন স্টোকস। মিডউইকেটে বাউন্ডারি থেকে বল ছুড়ে মারেন নিউজিল্যান্ডের মার্টিন গাপটিল। সেই থ্রো স্টোকসের ব্যাটে লেগে পেরিয়ে যায় বাউন্ডারি। হতাশায় শূন্যে দুহাত তোলেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। আত্মসমর্পণের ভঙ্গিতে দুহাত তুলে বসে পড়েন বেন স্টোকসও। ইংল্যান্ড পেয়ে যায় অতিরিক্ত চারটি রান। এক বলে মোট ছয় রান পায় ইংল্যান্ড।

ম্যাচের পর স্টোকস ওই অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার জন্য ক্ষমাও চেয়েছেন। স্টোকস বলেন, ‘আমি কেনকে বলেছি, ওই ঘটনার জন্য আজীবন ক্ষমা চেয়ে যাব।’

ফাইনালের শ্বাসরুদ্ধকর লড়াইয়ের সময় ওই চারটি রান না পেলে ম্যাচের ফল অন্য কিছুও হতে পারত। এই চার রানের জন্যই দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেও কাপ অধরা থাকল কেন উইলিয়ামসনদের।