ইপিএলঃ একই দিনে নামছে লিভারপুল, সিটি-ইউনাইটেড ও চেলসি

দুই সপ্তাহের আন্তর্জাতিক বিরতির পরে শনিবার থেকে ফের শুরু হচ্ছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ। একই দিনে নামছে লিভারপুল, ম্যানচেস্টার সিটি, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও চেলসি।

গত মৌসুমে মাত্র এক পয়েন্টের জন্য লিভারপুলের ইপিএল জয়ের স্বপ্ন ভেঙে গিয়েছিল। ৯৮ পয়েন্ট নিয়ে ম্যান সিটি চ্যাম্পিয়ন হয়। মোহাম্মদ সালাহ-রা শেষ করেছিলেন ৯৭ পয়েন্টে। এবার শুরু থেকেই দুরন্ত ছন্দে লিভারপুল। টানা চার ম্যাচ জিতে ১২ পয়েন্ট নিয়ে ইপিএলের শীর্ষে ইউরোপ সেরারা। শনিবার ঘরের মাঠে লিভারপুলের প্রতিপক্ষ চার ম্যাচে চার পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবলের ১৪তম স্থানে থাকা নিউক্যাসল ইউনাইটেড। কিন্তু ম্যাচের আগে লিভারপুল শিবিরে অস্বস্তি বাড়ছে অ্যালিসন বেকার ও নাবি কেইটার চোট নিয়ে।

চার ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবলের দ্বিতীয় স্থানে গত বারের চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটি। ১৯ নম্বরে থাকা নরউইচ সিটির পয়েন্ট চার ম্যাচে তিন। কিন্তু প্রতিপক্ষকে একেবারেই হাল্কা ভাবে নিতে রাজি নন ম্যানেজার পেপ গার্দিওলা। শনিবার নিউক্যাসল যদি লিভারপুলকে হারিয়ে দেয়, তা হলে জিতলেই শীর্ষ স্থানে উঠে আসার সুযোগ রয়েছে আগুয়েরোদের। সতর্ক পেপ বলেছেন, ‘‘আমরা এখনও পর্যন্ত মাত্র চারটি ম্যাচ খেলেছি। আসল লড়াই এ বার শুরু হবে। শনিবার নরউইচের বিরুদ্ধে ম্যাচ। সোমবার ইউক্রেন যেতে হবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেলতে। তার পরে আবার পরের শনিবার ইপিএলের খেলা রয়েছে। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে পরের পাঁচটি ম্যাচের মধ্যে চারটিই অ্যাওয়ে। তার উপরে লেরয় সানে ও এমেরিক ল্যাপর্তের চোট। আমাদের অঙ্ক কষে খেলতে হবে।’’

চেলসিকে ৪-০ চূর্ণ করে এই মৌসুমে ইপিএল অভিযান শুরু করেছিলেন পল পগবারা। তার পর থেকেই জয় অধরা ইউনাইটেড শিবিরে। শেষ তিনটি ম্যাচের মধ্যে ড্র দু’টিতে। হার একটিতে। চার ম্যাচে পাঁচ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবলের অষ্টম স্থানে রেড ডেবিলরা। তার উপরে পগবা, অ্যান্থনি মার্শিয়াল সহ-সাত জন তারকা চোটের কারণে দলের বাইরে চলে গিয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে শনিবার ঘরের মাঠ ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে লেস্টার সিটির বিরুদ্ধে ম্যাচের আগে স্বস্তিতে নেই ম্যানেজার ওলে গুনার সুলসার। গোড়ালির চোটের জন্য ফ্রান্সের হয়ে ইউরো কাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বের ম্যাচেও খেলেননি পগবা। হতাশ ইউনাইটেড ম্যানেজার বলেছেন, ‘‘অলৌকিক কিছু না ঘটলে পগবার পক্ষে লেস্টার সিটির বিরুদ্ধে খেলা সম্ভব নয়। ও এখন অনুশীলন করার অবস্থাতেও নেই।’’

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে ০-৪ লজ্জার হার দিয়ে ইপিএল শুরু করেছে চেলসি। দ্বিতীয় ম্যাচেও লেস্টার সিটির সঙ্গে ১-১ ড্র। তৃতীয় ম্যাচে অবশেষে জয়ের মুখ দেখেন ফ্র্যাঙ্ক ল্যাম্পার্ডের দল। নরউইচকে ৩-২ হারায় চেলসি। কিন্তু পরের ম্যাচে ফের ধাক্কা। শেফিল্ড ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে ২-২ ড্র। শনিবার ঘরের মাঠে উলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্সকে হারিয়ে চেলসি কি ঘুরে দাঁড়াতে পারবে? ম্যানেজার ল্যাম্পার্ড বলছেন, ‘‘আন্তোনিয়ো রুডিগার আমাদের অন্যতম ভরসা। এই ম্যাচে চোটের কারণে কয়েক জনকে পাওয়া যাবে না। তাই আন্তোনিয়োকেই নেতৃত্ব দেওয়ার বাড়তি দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিতে হবে।’’