ইতিহাসের পাতায় আনসু ফাতি

0
70

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচে ইন্টার মিলানের বিপক্ষে ২-১ গোলের জয় পেয়েছে বার্সেলোনা।

মেসি-সুয়ারেসের অনুপস্থিতিতে ম্যাচের শুরুতে ধুঁকতে দেখা যায় কাতালানদের। তবুও ইন্টার মিলানের মাঠে ২৩তম মিনিটে  নিজেদের এগিয়ে নেয় বার্সেলোনা। এন্টেনিও গ্রিজমানের পাস থেকে গোল করেন স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড কার্লেস পেরেজ।

এরপর সমতায় ফিরতে অতিথিদের ওপর চেপে বসে ইন্টার মিলান। সুযোগটাও পেয়ে যান রোমেলু লুকাকু। ৪৪তম মিনিটে বেলজিয়ান ফরওয়ার্ডের গোলে এগিয়ে যায় ইন্টার। ১-১ গোলের সমতা নিয়ে বিরতিতে যায় দু’দল।

এরপর লিড পেতে মরিয়া ছিল দুই দলই। কিন্তু আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণেও গোল পাচ্ছিল না। অবশেষে ম্যাচের ৮৫তম মিনিটে আনসু ফাতির জয়সূচক গোলে পূর্ণ পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে ভালভার্দের দল।

এদিন গোলের মধ্য দিয়ে আনসু  ফাতি রেকর্ডে নাম লিখান। ইন্টারের বিপক্ষে গোল করে আনসু ফাতি হয়ে গেছেন চ্যাম্পিয়নস লিগের ইতিহাসের সর্বকনিষ্ঠ গোলদাতা। কাল গোলের দিন তার বয়স ছিল ১৭ বছর ৪০ দিন। এর আগে  ১৯৯৭-৯৮ মৌসুমে অলিম্পিয়াকোসের ঘানাইয়ান স্ট্রাইকার পিটার ওফোরি কায়ে রোসেনবার্গের বিপক্ষে গোল করে গড়েছিলেন আগের রেকর্ডটা। তখন তার বয়স ছিল ১৭ বছর ১৯৫ দিন।

গিনিতে জন্ম নেওয়া আনসু ফাতি গত আগস্ট মাসে মাত্র ১৬ বছর ২৯৮ দিন বয়সে অভিষেক হয় বার্সেলোনার মূল দলে। বার্সেলোনার কম বয়সে অভিষেক হওয়া ফুটবলারও তিনি। মাত্র ১৬ বছর ৩০৪ দিন বয়সে ওসাসুনার বিপক্ষে লা লিগায় গোল করে হয়ে যায় বার্সেলোনার ইতিহাসে লিগে সর্বকনিষ্ঠ গোলদাতা।

এদিকে ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে গত ১৭ সেপ্টেম্বর ১৬ বছর ৩২১ বছর বয়সে খেলতে নামার পর হয়েছেন চ্যাম্পিয়নস লিগে বার্সেলোনার সর্বকনিষ্ঠ খেলোয়াড়। কাল গোলের দিন ফাতির বয়স ছিল ১৭ বছর ৪০ দিন।

ইন্টার মিলানের বিপক্ষে জয়ের পর ছয় ম্যাচে চার জয় ও দুই ড্রয়ে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্ব শেষ করল বার্সেলোনা। আর ৭ পয়েন্ট নিয়ে এবারের ইউসিএল থেকে বিদায় নিল ইন্টার।