আবাহনী ম্যাচের ভাগ্য ঝুলে আছে বসুন্ধরা কিংসেরও

0
92

করোনায় আবাহনী লিমিটেডের এএফসি কাপ প্রাক বাছাই নিয়ে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা। আবাহনীর পাশাপাশি কপাল পুড়তে পারে বসুন্ধরা কিংসেরও।

করোনার জন্য মালদ্বীপের ইগলস এফসির বিপক্ষে প্রাক-বাছাই ম্যাচ নিয়ে বিপাকে পড়েছে আবাহনী। পরিস্থিতির জটিলতায় ম্যাচটি মাঠে গড়ানো অসম্ভব বলে মনে করছে আকাশী-নীলরা। আর এই ম্যাচগুলো না হলে চতুর্থ দল নিশ্চিত হবে না গ্রুপ ডি’র। ফলে বিনষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে বসুন্ধরা কিংসের এএফসি কাপে অংশ নেওয়াও।

আবাহনী জানে এএফসি কাপ সম্ভাবনা তাদের অনিশ্চয়তার পথে। তবুও চলছে আবাহনীর প্রস্তুতি। সবধরের শঙ্কাকে একপাশে রেখে মাঠে নামতে প্রস্তুত রাখছে নিজেদের।

সূচি অনুযায়ী ১৪ এপ্রিল বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে হওয়ার কথা ছিল ম্যাচটি। যেখানে প্রতিপক্ষ মালদ্বীপের ক্লাব এগলস। কিন্তু বাংলাদেশের সরকারী লকডাউনে তৈরী হয়েছিল অনিশ্চয়তা। এরপর নিরপেক্ষ ভেন্যু নেপালের কাঠমুন্ডুতে ২১ এপ্রিল নির্ধারণ করা হয় পরবর্তী সূচি। সেখানেও গড়ায়নি ম্যাচ।

কোভিড-১৯’র জন্য ফ্লাইট বন্ধ থাকায় ঈগলস এফসিকে  আমন্ত্রণ জানাতে পারছে না। নিরপেক্ষ ভেন্যু ভারত কিংবা নেপালেও নেই কোন সম্ভাবনা। মালদ্বীপেরও আগ্রহ নেই প্রাক বাছাই কিংবা প্লে অফ আয়োজনের। এমন অবস্থায় এএফসি কাপ সম্ভাবনাই পড়েছে হুমকির মুখে।

আবাহনীর এই ম্যাচের উপর  বসুন্ধরা কিংসের এএফসি কাপ ভাগ্য নির্ধারিত হবে। কারণ সাউথ এশিয়ান জোনের প্রাক বাছাই এবং প্লে অফ পার হয়ে আসা দলটির জায়গা হবে গ্রুপ ডি’তে। তাছাড়া ভারতের করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ রুপ নেওয়ায় মোহনবাগান আছে বিপাকে। সব মিলিয়ে কপালটা পুড়তে পারে বসুন্ধরা কিংসের।

পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ১৪ মে থেকে শুরু হবে কিংসের এফসি কাপ। আর আবাহনীর প্রাক বাছাই ম্যাচের সময় ৩ মে।