আবারো স্থগিত হয়ে গোল বিশ্বকাপ ও এশিয়া কাপ বাছাইপর্ব

0
14

করোনার কারণে এশিয়া অঞ্চলের আসন্ন ২০২২ বিশ্বকাপ বাছাই পর্ব এবং ২০২৩ সালের এশিয়া কাপ ফুটবল স্থগিত ঘোষণা করেছে বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা ও এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন (এএফসি)। ম্যাচগুলো আগামী বছর আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে আজ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

তবে এখনো পর্যন্ত এ সব ম্যাচের কোন তারিখ নির্ধারণ করা হয়নি। আগামী অক্টোবর ও নভেম্বরে অনুষ্ঠিত হবার কথা ছিল এই অঞ্চলে বাছাইপর্ব।

বাংলাদেশে ফিফা বিশ্বকাপ ২০২২ এর বাছাইপর্বের খেলা অনুষ্ঠিত হবার কথা ছিল আগামী ৮ অক্টোবর এবং ১২ ও ১৭ নভেম্বর। এসব ম্যাচে বাংলাদেশ জাতীয় দলের প্রতিপক্ষ যথাক্রমে আফগানিস্তান, ভারত ও ওমান। এছাড়া ১৩ অক্টোবর অ্যাওয়ে ম্যাচে কাতারের মোকাবেলা করার কথা বাংলাদেশ দলের।

ফিফা ও এএফসির সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “অংশগ্রহণকারীদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তার কথা ভেবে আমরা এই বছরের খেলাগুলো স্থগিত করেছি। ফিফা ও এএফসি পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে বাছাইপর্বের ম্যাচগুলোর জন্য দিন তারিখ ঠিক করবে।পরবর্তীতে সময়মত বাছাইপর্বের এ ম্যাচগুলোর সময়সূচি জানানো হবে।”

এদিকে আজ বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় , ফিফা ও এএফসির সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের চলমান আবাসিক প্রশিক্ষণ ক্যাম্প আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে স্থগিতের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। তবে কোভিড-১৯ আক্রান্ত খেলোয়াড়দের বাফুফের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে।

এতে আরো বলা হয়, বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের গত ৫, ৬ ও ৮ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে কোভিড-১৯ পরীক্ষা করনোা হয়।

পরবর্তীতে গত ১০ আগস্ট প্রাভা হেলথ ও আইসিডিডিআরবি- এর মাধ্যমে পুনরায় ৩৬ জনের (৩০ জন খেলোয়াড় ও ৬ জন কর্মকর্তা/স্টাফ) কোভিড-১৯ পরীক্ষা করানো হয়। ওই টেস্টে ২৬ জন নেগেটিভ ও ৭ জন পজিটিভ এসেছে। পজিটিভ হওয়া ফুটবলাররা হলেন এম এস বাবলু, রবিউল হাসান, ফয়সাল আহমেদ ফাহিম, টুটুল হোসেন বাদশা, শহিদুল আলম, আনিসুর রহমান ও বিশ্বনাথ ঘোষ। এছাড়া এবং ৩ জন খেলোয়াড় রিয়াদুল হাসান, রায়হান হাসান ও রাকিব হোসেনকে সতর্ক পর্যবেক্ষণে রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।