আফগানিস্তান ম্যাচের চ্যালেঞ্জ আমার খেলোয়াড়দের নিতে হবেঃ জেমি ডে

তাজিকিস্তানের দুশনাবেতে আগামী ১০ সেপ্টেম্বর বিশ্বকাপ ও ২০২৩ এশিয়ান কাপের বাছাইয়ের ম্যাচে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। আগামী রোববার তাজিকিস্তানে রওনা দেবে দল। সেখানে ৩ ও ৫ সেপ্টেম্বর স্থানীয় দুই দলের সঙ্গে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচও খেলবেন জীবন-জুয়েলরা।

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনে (বাফুফে) শনিবার আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ সামনে রেখে দল ঘোষণা করে। এর আগে এই ম্যাচকে সামনে রেখে দলের লক্ষ্য নিয়ে কথা বলেন কোচ ডে।

জেমি ডের কথায়,

“১০ দিন অনুশীলন করেছি। প্লেয়ারদের ফিটনেস খুব ভালো দেখেছি। তারা খুব ইতিবাচক। টিম স্পিরিট ভালো আছে। আমি আফগানিস্তান ম্যাচের দিকে তাকিয়ে আছি। আফগানিস্তান আমাদের চেয়ে এগিয়ে। তাদের জেতাটাই স্বাভাবিক। কিন্তু ফুটবল দুই দলের খেলা। কারো বাজে দিন এলে প্রতিপক্ষ দল জিতে। আমরা যদি আত্মবিশ্বাস নিয়ে নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী সেরাটা খেলতে পারি, তাহলে আমরা জিততে পারি।”

“কেবল আফগানিস্তানের বিপক্ষে নয়, আমাদের ভালো খেলার ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে হবে বাছাইয়ের পুরোটা সময়ে। কেননা, বাছাইয়ের এ পর্বের সবগুলো দলই আমাদের চেয়ে ভালো।”

“কাতার, থাইল্যান্ডে আমরা এর আগেও যাদের সঙ্গে খেলেছি, তারা আমাদের চেয়ে শক্তিশালী ছিল। কিন্তু এটা কোনো বড় ইস্যু নয়। এই সুবিধা কাজে লাগে শুধু সেট পিসের সময়, বিশেষ করে খেলোয়াড়রা যদি দীর্ঘদেহী হয়। খেলা ১১ জন বনাম ১১ জন। আমার বিশ্বাস ছেলেরা ভালো লড়াই করবে।”

“আফগানিস্তান সম্পর্কে আমি অবশ্যই অনেক কিছু জানি। এটাই আমার কাজ। কারা বিপজ্জনক খেলোয়াড়, তাদের খেলার কৌশল কি, এসব নিয়ে আমার এবং আমার সহকারীদের একটা ভালো ধারণা হয়েছে। তবে এসব বিষয় নিয়ে খেলোয়াড়দের জানানো হয়নি। তাজিকিস্তানে গিয়ে এসব বিষয় তাদের সঙ্গে শেয়ার করব।”

“ডিফেন্সটাই আমাদের মূল কাজের জায়গা। আমরা তপু বর্মনকে মিস করব। সে আমাদের গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়। কিন্তু কিছু করার নেই। তার বদলে যারা খেলছে, তারাও ভালো করছে। রক্ষণ আমার কাছে জমাট মনে হচ্ছে। আমাদের মিডফিল্ডও ভালো। জীবন ও মতিন লিগে ভালো করেছে। গোল পেয়েছে। তবে এই পারফরম্যান্স আন্তর্জাতিক ম্যাচে নিয়ে যাওয়ার কঠিন কাজটা তাদের করতে হবে।”

“আবাহনীর প্লেয়াররা ক্লান্ত। তারা দীর্ঘদিন ধরে খেলছে। তাজিকিস্তানে তাদেরকে বিশ্রাম দিতে হবে কিছুটা। বাকিরা লম্বা মৌসুম খেলে যেটুকু বিশ্রাম পেয়েছে, তাই যথেষ্ট। আফগান ম্যাচ খেলার আগে তারা যথেষ্ট ফিট হয়ে উঠেছে।”

“আফগানিস্তান ম্যাচ অনেক কঠিন হবে। এই চ্যালেঞ্জ আমার খেলোয়াড়দের নিতে হবে। আফগানিস্তান র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে। আমাদের কাজও র‌্যাঙ্কিংযে উন্নতি করা। আমাদের কৌশল ও খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্স ভালো হতে হবে। কেননা, ভালো ফল হচ্ছে কোচের ট্যাকটিকস আর খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সের সম্মিলন।”